কাগমারী সম্মেলন



BDT280.00
BDT350.00
Save 20%

কাগমারী সাংস্কৃতিক সম্মেলন এবং তাতে উচ্চারিত মওলানা ভাসানীর ‘আসসালামু আলাইকুম’ বাঙালির স্বাধিকার আন্দোলনের ইতিহাসে এক মাইলফলক। সেই ঐতিহাসিক ঘটনা সম্পর্কে কোনো তথ্যনির্ভর ও আকরগ্রন্থ ছিল না। মওলানা ভাসানীর জীবনীকার সৈয়দ আবুল মকসুদের গবেষণালব্ধ এই তথ্যবহুল গ্রন্থ সেই অভাব পূরণ করবে। এতে এমন সব চমকপ্রদ তথ্য ও ঘটনার বিবরণ রয়েছে, যা অন্য কোনো বইয়ে নেই। 

Quantity


  • Security policy (edit with Customer reassurance module) Security policy (edit with Customer reassurance module)
  • Delivery policy (edit with Customer reassurance module) Delivery policy (edit with Customer reassurance module)
  • Return policy (edit with Customer reassurance module) Return policy (edit with Customer reassurance module)

১৯৫৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে কাগমারীতে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অধিবেশন এবং মওলানা ভাসানী আয়োজিত সাংস্কৃতিক সম্মেলন এমন এক ঘটনা, যার উল্লেখ ছাড়া বাঙালির স্বাধিকার আন্দোলন ও স্বাধীনতাসংগ্রামের ইতিহাস আলোচনা করা সম্ভব নয়। কাগমারী সম্মেলনে লাখো মানুষের সমাবেশে মওলানা ভাসানী বলেছিলেন, পশ্চিম পাকিস্তানি শাসক-শোষকেরা পূর্ব বাংলার প্রতি যে বৈষম্যমূলক আচরণ করছে, তাতে একদিন এ দেশের মানুষ পাকিস্তান থেকে বেরিয়ে আসবে। তাঁর ভাষায়, জনগণ পাকিস্তানকে জানাবে ‘আসসালামু আলাইকুম’। ওই সময় থেকে ‘আসসালামু আলাইকুম’ কথাটি ‘স্বাধীনতা’র সমার্থক শব্দ হিসেবে মানুষ উচ্চারণ করছিল। এবার, ২০১৭ সালে কাগমারী সম্মেলনের ৬০তম বার্ষিকী। ভাসানীর জীবনীকার প্রখ্যাত লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ ওই সম্মেলনের দুর্লভ ও লুপ্তপ্রায় দলিলপত্রের ভিত্তিতে লিখেছেন কাগমারী সম্মেলন: মওলানা ভাসানীর পূর্ব বাংলার স্বাধিকার ও সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংগ্রাম নামের এ বই। 

Reviews

No customer reviews for the moment.