হে বৃদ্ধ সময়



BDT160.00
BDT200.00
Save 20%

‘ওই দুর্ভিক্ষের কালে নেমন্তন্ন কি গমের গরম রুটি খাওয়ার ভাগ্য রোজ হয়? ঈদগা মাঠে লঙ্গরখানার ভোজে একবার সে কলার পাত পেতে বসেছিল। ভাপ ওড়ানো হলুদ ঢলঢলে খিচুড়ি। পরিবেশনকারী ছিলেন মজিবরদা। তার পাতে খিচুড়ি দিতে গিয়েই চট করে হাতা তুলে নেন তিনি, সিদ্দিক ডাক্তারের ব্যাটা বলে তাকে চিনতে পারেন, ধমক দিয়ে ওঠেন, ওঠ! ভুখা মানুষের লঙ্গর! তুই ক্যানে হেথায়? বাড়ি যা!’

—সৈয়দ শামসুল হক 

Quantity


  • Security policy (edit with Customer reassurance module) Security policy (edit with Customer reassurance module)
  • Delivery policy (edit with Customer reassurance module) Delivery policy (edit with Customer reassurance module)
  • Return policy (edit with Customer reassurance module) Return policy (edit with Customer reassurance module)

সৈয়দ শামসুল হকের শৈশব-কৈশোরের স্মৃতিকথা। কী বিচিত্র সেই স্মৃতির রং। তেতাল্লিশের মন্বন্তরের সময় থেকে শুরু করে শেষ হয় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সমাপ্তি এবং পরাধীন ভারত যে স্বাধীন হবে সেই আবহের সূচনালগ্নের ভেতর দিয়ে। কুড়িগ্রামের মতো মফস্বল শহর, তার জনজীবন, ধরলা নদী, তার উৎসব পার্বণ, জনজীবনের সঙ্গে বাদশার—সৈয়দ হকের ডাকনাম—গভীর সখ্য, পাঠককে থেকে থেকেই নিয়ে যাবে সেই কালপর্বটিতে, যা ভুলবার নয়, চিরকাল মনে রাখবার। 

Reviews

No customer reviews for the moment.