১০ সদর স্ট্রিট: রবীন্দ্রনাথের কলকাতা (৩য় মুদ্রণ)



BDT360.00
BDT450.00
Save 20%

ভারতের একসময়ের রাজধানী ছিল কলকাতা। কত নামেই না ডাকা হতো তাকে। পত্তনের সোয়া তিন শ বছর পর কলকাতার স্থাপত্য, ভাস্কর্য, সংগীত, চলচ্চিত্র, গ্রন্থ, খাবারদাবার ও পরিবেশ—সব ক্ষেত্রে উদ্ভাসিত হয়ে আছেন এক অনন্য রবীন্দ্রনাথ। ২৫ বছর ধরে ২৫ বারের বেশি পরিভ্রমণে লেখক কলকাতায় কীভাবে সেই রবীন্দ্রনাথকে আবিষ্কার ও অনুধাবন করেছেন, তারই মনোজ্ঞ বিবরণ এই বই।
Quantity


  • Security policy (edit with Customer reassurance module) Security policy (edit with Customer reassurance module)
  • Delivery policy (edit with Customer reassurance module) Delivery policy (edit with Customer reassurance module)
  • Return policy (edit with Customer reassurance module) Return policy (edit with Customer reassurance module)
২৫ বছর আগে কলকাতা সফর দিয়ে শুরু হয়েছিল শাকুর মজিদের বিশ্বপর্যটন। এর মধ্যে ত্রিশটির বেশি দেশ ভ্রমণ করে বেশ কয়েকটি বই লিখেছেন। এবার লিখেছেন তাঁর দেখা প্রথম বিদেশি শহর কলকাতাকে নিয়ে ভিন্ন স্বাদের এক ভ্রমণকাহিনি। সোয়া তিন শ বছর আগে ইংল্যান্ড থেকে আসা বণিকেরা কলকাতায় বাণিজ্য শুরু করেছিল। কাছাকাছি সময়ে বর্তমান বাংলাদেশের যশোর থেকে এক কুশারী ব্রাহ্মণ পরিবার ভাগ্যান্বেষণের জন্য কলকাতা চলে যায়। ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি আর ঠাকুর পরিবার সমান্তরালভাবে বেড়ে ওঠে কলকাতায়। এই পরিবারের এক সদস্য দ্বারকানাথ ঠাকুর একসময় বাঙালিদের কাছে ইংরেজ রাজপুত্রের মতো কদর পেতে শুরু করেন। ব্রিটিশ-ভারতের রাজধানী কলকাতাকে সিটি অব প্যালেস, সিটি অব বুকস, সিটি অব জয়—নানা নামে ডাকা হতে থাকে। একসময় শহরটি রাজধানীর মর্যাদা হারায়। ইংরেজরা চলে যায়, ঠাকুর পরিবারের জমিদারিরও অবসান ঘটে। কলকাতা পত্তনের সোয়া তিন শ বছর পর নগরটি তাহলে এখন কী নিয়ে আছে? প্রশ্নটির উত্তর খুঁজতে গিয়ে কলকাতার পরিবেশ, স্থাপত্য, ভাস্কর্য, সংগীত, নাটক, চলচ্চিত্র, পুস্তক এমনকি খাবারদাবারের মধ্যেও শাকুর মজিদ খুঁজে পেয়েছেন এক রবীন্দ্রনাথকে। কলকাতায় রবীন্দ্রভ্রমণ নিয়ে লেখকের বিশদ গবেষণা ও পর্যবেক্ষণ পাঠককে আমোদিত ও সমৃদ্ধ করবে।

Reviews

No customer reviews for the moment.