৩২০.০০ টাকা ২০% ছাড় ৪০০.০০ টাকা

সৈয়দ আব্দুল হাদী নিজেই হয়ে উঠেছেন জীবন্ত এক ইতিহাস। এই আত্মজীবনীমূলক বইয়ে গানের জগতের নানা তথ্য, ইতিহাস, স্মৃতি আমাদের মাঝে অকপটে বলেছেন তিনি। অনেক অজানা বিষয়ও উঠে এসেছে তাঁর লেখায়। পাঠকমাত্রই ঋদ্ধ হবেন নিঃসন্দেহে।

পছন্দের তালিকায় রাখুন

বইয়ের বিবরণ

হতে চেয়েছিলেন শিক্ষক, কিন্তু ভাগ্যের কালচক্রে হয়েছেন গায়ক। ছোটবেলা থেকেই ছিলেন বাউন্ডুলে ধরনের, স্কুলের পর বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডাই ছিল তাঁর প্রধান কাজ। ছোটবেলার বন্ধুদের সঙ্গে তাঁর বৈচিত্র্যময় স্মৃতি ছবির মতো আমাদের চোখের সামনে হাজির করেছেন তাঁর জাদুকরি লেখায়। কলের গান শুনেই সংগীতের প্রতি জাগে অগাধ ভালোবাসা। সেই ভালোবাসা থেকেই ধীরে ধীরে গানের জগতে প্রবেশ। অন্য গায়কদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তিনি হয়ে উঠেছেন গানের জগতের এক অপ্রতিরোধ্য গায়ক। তাঁর জীবনের সংগ্রাম, গানের জগতে প্রবেশ, মানুষের ভালোবাসা সবই উঠে এসেছে জীবনের গান বইয়ে। বইটি থেকে পাঠকেরা সৈয়দ আব্দুল হাদীর জীবন তো জানতে পারবেনই, পাশাপাশি জানতে পারবেন তৎকালীন গানের জগতের মানুষদের ইতিহাস।

আলোর উৎস কিংবা ডিভাইসের কারণে বইয়ের প্রকৃত রং কিংবা পরিধি ভিন্ন হতে পারে।

সৈয়দ আব্দুল হাদী

সৈয়দ আব্দুল হাদী জন্ম আগরতলায়। ১ জুলাই ১৯৪০। পিতা সৈয়দ আব্দুল হাই এবং মাতা মোমেনা খাতুন। বাংলা ভাষা ও সাহিত্য নিয়ে পড়ালেখা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। ১৯৬০ সাল থেকে সংগীতের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। গেয়েছেন অসংখ্য গান। রাষ্ট্রীয় পুরস্কার একুশে পদকে ভূষিত হয়েছেন। ৫ বার পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এ ছাড়া পেয়েছেন শিল্পকলা একাডেমি পুরস্কার, বাংলাদেশ টেলিভিশন সুবর্ণজয়ন্তী সম্মাননা, নজরুল একাডেমি সম্মাননা, চ্যানেল আই আজীবন সম্মাননা, এটিএন বাংলা সম্মাননা, ডেইলি স্টার সম্মাননা ছাড়াও শতাধিক সংগঠনের পুরস্কার।

এই লেখকের আরও বই
এই বিষয়ে আরও বই
আলোচনা ও রেটিং
০(০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
আলোচনা/মন্তব্য লিখুন :

আলোচনা/মন্তব্যের জন্য লগ ইন করুন