২৮০.০০ টাকা ২০% ছাড় ৩৫০.০০ টাকা

মহাবিশ্বের পুরো কাঠামোর মাত্র ৪ শতাংশ দৃশ্যমান বস্ত্ত দিয়ে গড়া। ৯৬ শতাংশই রয়ে গেছে অদৃশ্য। অদৃশ্য ভরের ২১ শতাংশ ডার্ক ম্যাটার, বাকি ৭৫ শতাংশ ডার্ক এনার্জি। এদের দেখা যায়, তবে তার অকাট্য প্রমাণ মেলেনি। তবু এদের অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলার সুযোগ নেই। বিজ্ঞানীরা জানতে চান, সেই ভুতুড়ে গুপ্ত বস্ত্ত আর শক্তিগুলো আসলে কী দিয়ে তৈরি? পাঠক, আপনিও কি জানতে চান না? 

পছন্দের তালিকায় রাখুন

বইয়ের বিবরণ

ডার্ক ম্যাটার ও ডার্ক এনার্জি নিজেদের লুকিয়ে রেখেছে ধোঁয়াশার আড়ালে। সেই আড়াল সরিয়ে গুপ্ত বস্ত্ত আর শক্তিগুলোর দিনের আলোর মতো আলোকিত হওয়ার আশু সম্ভাবনা নেই। তাই বলে কি বসে থাকবেন বিজ্ঞানীরা? তাঁরা চেষ্টা করছেন মহাবিশ্বকে বোঝার, মহাবিশ্বের সৃষ্টিরহস্য পুরোপুরি উন্মোচন করার। সে কাজে সফল হতে হলে গুপ্ত ভরশক্তির প্রত্যক্ষ প্রমাণ পেতে হবে। না হলে অজানা থেকে যাবে মহাবিশ্বের ৯৬ শতাংশ রহস্যই। তাই বিজ্ঞানীরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন: ডার্ক ম্যাটারের খোঁজে ফাঁদ পেতেছেন মাটির বহু গভীরে, গুপ্ত শক্তির খোঁজে মহাকাশে ছিপ ফেলেছেন নভোটেলিস্কোপের সাহাঘ্যে। কিন্তু ডার্ক ম্যাটার আর ডার্ক এনার্জি রহস্যই রয়ে গেছে। ডার্ক ম্যাটার আর ডার্ক এনার্জি কী এমন জিনিস যে নিজেদের এরা এতটা রহস্যাবৃত করে রেখেছে, বিজ্ঞানীরা চেষ্টা করেও কেন সেই অবগুণ্ঠন সরাতে পারছেন না—এসবের বিস্তারিত বিবরণ আছে এ বইয়ে। 

আলোর উৎস কিংবা ডিভাইসের কারণে বইয়ের প্রকৃত রং কিংবা পরিধি ভিন্ন হতে পারে।

এই লেখকের আরও বই
এই বিষয়ে আরও বই
আলোচনা ও রেটিং
০(০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
আলোচনা/মন্তব্য লিখুন :

আলোচনা/মন্তব্যের জন্য লগ ইন করুন