১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ড: প্রবাসে বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যার দুঃসহ দিন

লেখক: সরাফ আহমেদ

বিষয়: ইতিহাস, নতুন বই, নির্বাচিত বই, বঙ্গবন্ধু

২৪০.০০ টাকা ২০% ছাড় ৩০০.০০ টাকা

১৫ আগস্ট নির্মম হত্যাকাণ্ডের সময় বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা ছিলেন বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে। বেলজিয়াম, জার্মানি, ভারত ও ব্রিটেনে কীভাবে কেটেছিল তাঁদের সেই সব দুঃসহ দিন, তারই অনুসন্ধানী ও রুদ্ধশ্বাস বিবরণে ঠাসা এ বই পাঠক ও গবেষকদের জন্য খুলে দেবে ইতিহাসের অজানা দরজা।

পছন্দের তালিকায় রাখুন

বইয়ের বিবরণ

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঢাকায় ঘাতকদের গুলিতে সপরিবার নিহত হন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। সেদিন বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে থাকায় বেঁচে যান তাঁর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা। সঙ্গে ছিলেন ওয়াজেদ মিয়া এবং শেখ হাসিনার দুই শিশুসন্তান জয় ও পুতুল। এরপর তাঁদের জীবনে নেমে আসে চরম অনিশ্চয়তা। শুরু হয় রুদ্ধশ্বাস দিন। নিষ্ঠুর সেই ঘটনার পর প্রবাসে তাঁদের দুঃসহ দিনগুলো কীভাবে কেটেছিল? জার্মানিতে বসবাসরত সাংবাদিক সরাফ আহমেদের অনুসন্ধানে উঠে এসেছে সেই সব দিনের অজানা তথ্য। ভারত থেকে লেখা ওয়াজেদ মিয়া, শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানার অপ্রকাশিত চিঠি এবং আর্কাইভে রাখা জার্মান সংবাদপত্রের খবরাখবর সংগ্রহ করেছেন লেখক। এসব নিয়েই তথ্যে ভরপুর এ বই।

  • শিরোনাম ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ড: প্রবাসে বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যার দুঃসহ দিন
  • লেখক সরাফ আহমেদ
  • প্রকাশক প্রথমা প্রকাশন
  • দেশ বাংলাদেশ
  • ভাষা বাংলা

আলোর উৎস কিংবা ডিভাইসের কারণে বইয়ের প্রকৃত রং কিংবা পরিধি ভিন্ন হতে পারে।

সরাফ আহমেদ

লেখক পরিচিতি: সরাফ আহমেদ জন্ম ও বেড়ে ওঠা রাজশাহী শহরের রানীবাজারে। লেখাপড়া লোকনাথ হাইস্কুল, রাজশাহী কলেজ ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে। ভূগোলে অনার্স ও মাস্টার্স। হ্যানোভার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজকল্যাণেও মাস্টার্স করেছেন। ১৯৮৫ সাল থেকে আছেন জার্মানির হ্যানোভার শহরে। ইউরোপ নিয়ে লিখছেন ৩০ বছর ধরে। লোয়ারসাক্সেন প্রদেশের শিক্ষা বিভাগে চাকরির পাশাপাশি তিনি প্রথম আলোর জার্মানি প্রতিনিধি। হ্যানোভারে ২৫ বছর আগে প্রতিষ্ঠা করেন আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র। সংগঠনটি পরিবেশ, বর্ণবাদ, শরণার্থী ও আন্তসাংস্কৃতিক সংহতি নিয়ে কাজ করছে।

এই বিষয়ে আরও বই
আলোচনা ও রেটিং
০(০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
আলোচনা/মন্তব্য লিখুন :

আলোচনা/মন্তব্যের জন্য লগ ইন করুন