২২৫.০০ টাকা ২৫% ছাড় ৩০০.০০ টাকা

মৃত্যু শিয়রে রেখে তিনি ‘একটি কালো মেয়ের কাহিনী’ এবং ‘সুতপার তপস্যা’ নামে দু’খানি ছোট উপন্যাস লেখেন। মুক্তিসংগ্রামের চূড়ান্ত পর্যায়ে তখনকার পূর্ব পাকিস্তানে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী যে নিধনযজ্ঞ ঘটিয়েছিল তার বিবরণ একটি কালো মেয়ের কাহিনীতে বর্ণিত হয়েছে। এবং এখানে সুস্পষ্ট ইঙ্গিত আছে যে বাংলাদেশ স্বাধীন হবেই। রোগশয্যায় শুয়ে শুয়ে এ উপন্যাসখানি লেখা। অন্য উপন্যাস ‘সুতপার তপস্যা’ পশ্চিম বাংলার অস্থির সময়ের গল্প। রক্ত ঝরছে দুই জায়গাতেই। মুক্তিযুদ্ধে ঝরছে এই বাংলার মানুষের রক্ত। পশ্চিম বাংলাতেও ঘটছে তা-ই। কিন্তু তার পটচিত্র আলাদা। সেই অস্থির সময়ে পশ্চিম বাংলায় রাজনৈতিক স্থিতি ভেঙ্গে পড়ার উপক্রম হয়েছিল। কংগ্রেস শাসনে আস্থা নেই, অথচ প্রায় গোটা ভারতবর্ষেই কংগ্রেস শাসন চলছে। পশ্চিম বাংলায় নকশাল আন্দোলন এবং বাম রাজনীতির ছিন্নভিন্ন অবস্থা। মরিয়া হয়ে সবাই লড়ছে। রক্ত ঝরছে মানুষের। ভূমিকম্পে মজবুত ইমারতের যেমন ফাটল ধরে যায় এ রকম নানামুখী হানাহানিতে পশ্চিম বাংলাতেও সব কিছু ধ্বসে পড়ার লক্ষণগুলি স্পষ্ট হয়ে ওঠে। এই অবস্থাটিকে সামনে রেখেই তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায় রচনা করেন ‘সুতপার তপস্যা’।
বই দুটির কোনোটিতেই তারাশঙ্কর অনাবশ্যক হৃদয়কাতরতাকে প্রশ্রয় দেন নি। শত নিঙড়ালেও ভাবাবেগ, করুণা বা সহানুভূতির ছায়া মিলবে না এখানে যা তারাশঙ্করেরই রচনার মূল লক্ষণ। দুটি উপন্যাস মিলে ১৯৭১ বইটি পাঠকপ্রিয় হবে সন্দেহ নেই।

পছন্দের তালিকায় রাখুন

বইয়ের বিবরণ

আলোর উৎস কিংবা ডিভাইসের কারণে বইয়ের প্রকৃত রং কিংবা পরিধি ভিন্ন হতে পারে।

এই লেখকের আরও বই
এই বিষয়ে আরও বই
আলোচনা ও রেটিং
০(০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
  • (০)
আলোচনা/মন্তব্য লিখুন :

আলোচনা/মন্তব্যের জন্য লগ ইন করুন