চোরাগলি



BDT200.00
BDT250.00
Save 20%

তরুণদের একটা বড় অংশ আজ মাদকাসক্ত। অনেকে জড়িয়ে পড়ছে মাদক ব্যবসার সঙ্গেও। স্বভাবে তারা হয়ে উঠছে হিংস্র। এই উপন্যাসের

মূল চরিত্র ইথা হাতেনাতে ধরে ফেলে তার মাদকসেবী প্রেমিক ও মাদকবিক্রেতা তন্ময়কে। এ ঘটনার মধ্য দিয়ে সূচনা ঘটে উপন্যাসের চরিত্রগুলোর দ্বন্দ্ব-সংঘাতের; জট-জটিলতার। মোহিত কামালের 

এ উপন্যাসের কাহিনির যে বিস্তার, তা শুধু  ভালোই লাগবে না, গভীরভাবে ভাবতেও বাধ্য করবে। 

Quantity


  • Security policy (edit with Customer reassurance module) Security policy (edit with Customer reassurance module)
  • Delivery policy (edit with Customer reassurance module) Delivery policy (edit with Customer reassurance module)
  • Return policy (edit with Customer reassurance module) Return policy (edit with Customer reassurance module)

চারপাশে ফাঁদ, চোরাগলি। না-বুঝে অনেক তরুণ-তরুণী আটকে যায় সেই মরণফাঁদে। বিপন্ন হয়ে ওঠে তাদের জীবন। এমনই এক বিপন্নতা থেকে মাথা উঁচিয়ে বেরিয়ে আসে তরুণী ইথা। ইথার মা মারা যায় যখন ওর বয়স তিন বছর। সে মাতৃস্নেহ পেয়েছে কিশোরী ফুপু জিনাত আরার কাছে। জিনাত আরাকেই সে ‘মা’ বলে জানে।

ইথার প্রেমিক তন্ময় মাদক গ্রহণ করে, বিশাল এক মাদক ব্যবসায়ী চক্রের সদস্য সে। ইথা এসব জানার পর ওই মাদক ব্যবসায়ীরা তার ব্যাপারে মারমুখী হয়ে ওঠে। তাকে সন্দেহ করে পুলিশের সোর্স হিসেবে। ইথার বন্ধু পুনমকে তারা আঘাত করে। ইথাকে লক্ষ্য করে ছুড়ে মারে অ্যাসিড। ইথাকে বাঁচাতে গিয়ে জিনাত আরা হারান তাঁর দুটি চোখ। আসামিরা ধরা পড়ে, কিন্তু মাদক ব্যবসায়ী চক্র কি পুরোপুরি নিশ্চিহ্ন হয়?

মাদক নিয়ে কত ঘটনাই না ঘটছে বাংলাদেশে। তারই একটা গভীর চিত্র এই উপন্যাসে উপস্থাপন করেছেন কথাশিল্পী মোহিত কামাল।

Reviews

Est non vel adipisic

| 24/07/2019

Est dolor ut exerci

Veritatis irure omni

| 24/07/2019

Molestiae temporibus

Corporis ut quis bla

| 24/07/2019

Voluptate id invent