হিরোশিমা নাগাসাকির কথা



BDT224.00
BDT280.00
Save 20%

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের একেবারে শেষ পর্যায়ে জাপানের হিরোশিমা-নাগাসাকির ওপর আণবিক বোমা হামলার ঘটনা নিয়ে বাংলায় পূর্ণাঙ্গ কোনো বই নেই বললেই চলে। লেখক-সাংবাদিক মনজুরুল হক এই প্রথম এ বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ একটি বই লিখলেন। এ বইয়ে উঠে এসেছে জাপানের দুটি শহরে আণবিক বোমা হামলার ধ্বংসযজ্ঞের বিবরণ, তার সুদূরপ্রসারী ভয়াবহ প্রতিক্রিয়ার বর্ণনা। আমেরিকার এই আক্রমণের কূটনৈতিক লক্ষ্য সম্পর্কে পাওয়া যাবে সুস্পষ্ট ধারণা। এ হামলার স্মৃতি ধরে রাখতে হিরোশিমা ও নাগাসাকির মানুষের তৎপরতার কথা বইটির গুরুত্ব বাড়িয়েছে। 

Quantity


  • Security policy (edit with Customer reassurance module) Security policy (edit with Customer reassurance module)
  • Delivery policy (edit with Customer reassurance module) Delivery policy (edit with Customer reassurance module)
  • Return policy (edit with Customer reassurance module) Return policy (edit with Customer reassurance module)

জাপানের হিরোশিমা-নাগাসাকি শহর দুটির ওপর দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের একেবারে শেষ পর্যায়ে আণবিক বোমা হামলায় প্রায় দেড় লাখ মানুষ মারা যায়। এ বইয়ে তার বিবরণ যেমন আছে, তেমনি আছে ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ ও আণবিক বিক্রিয়াজনিত সুদূরপ্রসারী পরিণতির বিবরণও। লেখক প্রশ্ন তুলেছেন, হিরোশিমা-নাগাসাকির ওপর আণবিক বোমা হামলা কি অনিবার্য ছিল? যখন এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটানো হয়, জাপান তখন সামরিকভাবে দুর্বল, আত্মসমর্পণের প্রস্ত্ততিতে তৎপর। এই বোমা হামলার পেছনে আমেরিকার কূটনৈতিক উদ্দেশ্যকেও লেখক তুলে ধরেছেন। শুধু তা-ই নয়, লেখক সরেজমিনে হিরোশিমা-নাগাসাকি শহর দুটির নানা শ্রেণির প্রতিনিধিত্বশীল ব্যক্তিদের সাক্ষাৎকারও নিয়েছেন। শহর দুটির স্মৃতি জাগরূক রাখার যে বিচিত্র প্রয়াস এখনো অব্যাহত, লেখক তারও বিবরণ তুলে ধরেছেন। হিরোশিমা-নাগাসাকির ওপর আণবিক বোমা হামলা ও তার ধ্বংসযজ্ঞ বিষয়ে বাংলা ভাষায় এই প্রথম পূর্ণাঙ্গ বই প্রকাশিত হলো। 

Reviews

No customer reviews for the moment.