অন্নদাতা বাংলার তেতাল্লিশের মন্বন্তরের কাহিনি (২য় মুদ্রণ)



BDT96.00
BDT120.00
Save 20%

আজও দূতাবাসের সামনে মৃত লাশ পাওয়া গেছে। আমার চাপরাসি বলল, এদের সবাই একই পরিবারের সদস্য। সবাই গ্রামাঞ্চল থেকে খাবারের সন্ধানে কলকাতা এসেছিল। গতকাল একজন সঙ্গীতশিল্পীর লাশ দেখেছি। এক হাতে তিনি একটি সেতার আঁকড়ে ধরে আছেন, অন্য হাতে শিশুদের খেলার একটা কাঠের ঝুমঝুমি। একটা বাদ্যযন্ত্র এবং একটা খেলনা। আমি এর কোনো অর্থ খুঁজে পাইনি। হতভাগ্য ইঁদুরের দল! কেমন নিঃশব্দে মরে, মুখে সামান্য ‘আহ্‌’ শব্দ করারও জোর নেই। 

Quantity
There are not enough products in stock


  • Security policy (edit with Customer reassurance module) Security policy (edit with Customer reassurance module)
  • Delivery policy (edit with Customer reassurance module) Delivery policy (edit with Customer reassurance module)
  • Return policy (edit with Customer reassurance module) Return policy (edit with Customer reassurance module)

উর্দুসাহিত্যের বিখ্যাত কথাশিল্পী কৃষণ চন্দর বাংলা ১৩৫০ সালের (১৯৪৩ খ্িরষ্টাব্দ) মহাদুর্ভিক্ষ নিয়ে লেখেন তাঁর উপন্যাসিকা অন্নদাতা। কলকাতার পথে পথে তখন অস্থিসর্বস্ব শিশু কাঁধে অভুক্ত মায়ের চিৎকার, ‘মাগো ফ্যান দাও, একটু ফ্যান দাও।’ সেই মন্বন্তর কৃষণ চন্দরকে প্রবলভাবে আলোড়িত করেছিল। এই কাহিনিতে আছে, ‘মন্বন্তরে ঝাঁকে ঝাঁকে যেভাবে মানুষের মৃত্যু হয়েছে, পিঁপড়ে ও ইঁদুরও এমন বীভৎসভাবে মরে না।’ কিন্তু এ বইয়ে শুধু ক্ষুধা আর অনাহারে মৃত্যুর কথাই নেই, আছে জীবনের কথাও। তারই অংশ একজন সেতারবাদকের সঙ্গে সমুদ্র থেকে উঠে আসা জেলেপল্লীর জলপরীর প্রেম। এই ছোট বইটি পড়তে শুরু করলে পাঠকের অজান্তেই শেষ হয়ে যায়। তারপর বসে থাকতে হয় রুদ্ধবাক হয়ে। 

Reviews

No customer reviews for the moment.